Breaking News

প্রবাসীদের দাবি পাসপোর্টকে জাতীয় পরিচয়পত্রের বিকল্প করার

গত ১৪ জুন বাংলাদেশে হাইকোটের নতুন রুলে বলা হয়েছে জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া আদালত ও থানায় কোন মামলা গ্রহন করা হবে না। এর ফলে, প্রবাসী যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের মধ্যে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়েছে।

বিশেষ করে যুক্তরাজ্য প্রবাসীরা হাইকোর্টের এই রায় পুনর্বিবেচনার দাবির পাশাপাশি দ্রুত হাইকমিশনের মাধ্যমে পরিচয়পত্র প্রদানে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।একই সাথে প্রবাসীদের পাসপোর্ট জাতীয় পরিচয়পত্রের বিকল্প হিসেবে বিবেচনার দাবি জানিয়ে স্মারকলিপি পেশ করেছেন।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করেন,পৃথিবীর ১৬৮ দেশে প্রায় ১ কোটি ৬০ লাখ বাংলাদেশি বসবাস করেন। তারা প্রতিবছর রেমিট্যান্স পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।করোনা মহামারি সময়ে গত বছর প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন রেকর্ড ২২ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স। প্রবাসীদের প্রত্যেকেই কোনো না কোনোভাবে দেশের সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছে পারিবারিকভাবে অথবা আত্মীয়তার বন্ধনে।

বিভিন্ন সময় প্রবাসীরা নানা জটিলতার শিকার হন স্থানীয় প্রভাবশালীদের দ্বারা, আবার কখনো প্রতারিত হন নিজের পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে। শেষ ভরসা হিসেবে প্রবাসীরা তখন আদালতের দ্বারস্থ হন। জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া মামলা করা যাবে না, আদালতের এমন নির্দেশনা প্রবাসীদের জন্য বিড়ম্বনার কারণ হবে।

বিশেষ করে তৃতীয় বাংলা খ্যাত যুক্তরাজ্যের প্রবাসীদের চতুর্থ পঞ্চম প্রজন্ম প্রতিনিধিত্ব করছে। আমরা নানা ভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি নতুন প্রজন্মকে দেশের সাথে সংযুক্ত রাখতে। কিন্তু পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদে আমরা দেখেছি, বাংলাদেশের মহামান্য হাইকোর্ট এক আদেশে বলেছেন, এখন থেকে মামলা করতে বাদীর জাতীয় পরিচয়পত্র লাগবে।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এই ধরণের একটি উদ্যেগকে আমরা সাধুবাদ জানাই। সময়ের প্রয়োজনে এবং মিথ্যা মামলার হয়রানী ভুয়া প্রতারণামুলক, হয়রানী প্রতিরোধে এই রায় যুগান্তকারী হিসাবেই বিবেচিত হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।দেশে বসবাসকারী নাগরিকদের জন্য এটি কষ্টসাধ্য নয় এবং প্রাপ্ত বয়স্ক সকল নাগরিকই দেশের ভোটার হিসাবে সবার কাছেই জাতীয় পরিচয়পত্র আছে।

কিন্তু, প্রবাসীদের ক্ষেত্রে আদালতের এই আদেশ সমানভাবে প্রযোজ্য হলে প্রবাসীরা হয়রানী ও প্রতারণার শিকার হবেন বলে মনে করছেন। সংবাদটি প্রকাশিত হবার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ নানাভাবেই নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ তাদের উদ্বেগ জানিয়েছেন।প্রবাসীদের উদ্বেগর বিষয়টি তুলে ধরে লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে স্বারক লিপি প্রদান করেছে যুক্তরাজ্য প্রবাসীদের সংগঠন এনআরবি।

শুক্রবার (১৮ জুন) সহকারী হাইকমিশনার জুলকার নাইনের কাছে এই এই স্মারকলিপি তুলে দেন সংগঠনের নেতারা। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রতিনিধি সাংবাদিক আহাদ চৌধুরী বাবু, সাংবাদিক জুয়েল রাজ, সাংবাদিক শাহ বেলাল।

About admin

Check Also

সৌদি প্রবাসীরা পুলিশের হাতে ধরা দেওয়ার আগে সাবধান। সৌদি থেকে নির্বাসিত হলে আপনি বড় বিপদে পড়বেন।

সৌদি প্রবাসীরা পুলিশের হাতে ধরা দেওয়ার আগে সাবধান। সৌদি থেকে নির্বাসিত হলে আপনি বড় বিপদে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *